বৃহস্পতিবার, মে 23, 2019
Home > অযোধ্যার শ্রীরামমন্দির > অযোধ্যায় নিহাঙ্গ শিখযোদ্ধা

অযোধ্যায় নিহাঙ্গ শিখযোদ্ধা

১৮৫৮ সালের ২৮ এ নভেম্বর : একটি ঐতিহাসিক মোকদ্দমা দায়ের করেন অবধের ( অযোধ্যা) এক থানা প্রভারী : অভিযোগ যে ২৫ জন নিহাঙ্গ শিখযোদ্ধা বাবরি মসজিদের ভিতরে ঢুকে যজ্ঞ ও অন্যান্য ধর্মীয় উপাচার পালন করেছেন। পরবর্তীতে, ৩০ শে নভেম্বর বাবরি মসজিদের এক অধিকারীও অনুরূপ একটি অভিযোগ দায়ের করেন। তাতেও বলা হয় যে ২৫ জন শিখ নিহাঙ্গ যোদ্ধা মসজিদে প্রবেশ করে যজ্ঞ ও উপাসনা করেছেন এবং মসজিদের ভিতরের দেওয়ালে কাঠ কয়লা দিয়ে “রাম” নাম উৎকীর্ণ করেছেন। এই অভিযোগে তিনি আরও বলেন যে দীর্ঘ সময়কাল ধরে হিন্দু সম্প্রদায় ভগবান রামের জন্মস্থানে পূজা করে আসছেন যা কিনা ওই একই পরিসরে কিন্তু মসজিদ ভবনের বাইরে অবস্থিত, এইবার হিন্দুরা মসজিদের ভিতরে প্রবেশ করেছেন ও পূজা অর্চনাও করেছেন।

এই সত্যটি যখন স্বাধীনতা পরবর্তীকালে এলাহাবাদ হাইকোর্টে শুনানির সময় পেশ করা হয়, তখন এই তথ্য রামজন্মভূমি মামলার এক গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষ্য হিসেবে গৃহীত হয় কারন সেই অভিযোগপত্রের আসল নথি এখনো সুরক্ষিত আছে। উপর্যুপরি এই নথিটি আরও একটি কারনে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ যেখানে মসজিদের এক অধিকারী নিজেই স্বীকার করেছেন যে ওই মসজিদ পরিসরে হিন্দুদের নিয়মিত পূজা করার রীতি প্রচলিত ছিল এমনকি মসজিদের ভিতরেও হিন্দুরা পূজা অর্চনা করেছেন; যখন অন্য অনেকেই দাবী করে থাকেন যে মসজিদ পরিসরে হিন্দুদের কোনো প্রবেশাধিকারও ছিল না। এই নথিটি থেকে এটা সুস্পষ্ট যে হিন্দুদের ওই মসজিদ পরিসরে প্রবেশ ও পূজা অর্চনা করার অবাধ অধিকার ছিল। তৎকালীন অবধের থানা প্রভারীর বেশ কয়েক সপ্তাহের প্রচৈষ্টায় ওই নিহাঙ্গ শিখযোদ্ধাগণ মসজিদ ভবন থেকে বের হয়ে আসেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: